peyera bazzar
peyera-bazzar

ভাসমান পেয়ারা বাজার | ঝালকাঠি

ভাসমান পেয়ারা বাজারঃ বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় পেয়েরা বাগান গড়ে উঠেছে ঝালকাঠি, বরিশাল এবং পিরোজপুরের সিমান্তবর্তী এলাকায়। নদীর উপরে গড়ে উঠেছে পেয়ারা বাগান এবং একর জমির উপর গড়ে উঠেছে এই পেয়ারা বাগান।প্রতিদিন পেয়ারার হাট বসে এবং পেয়ারা গুলো নৌকায় করে হাটে আসে আর নৌকায় করেই বিক্রি হয়ে যায়। ছবির মত চমৎকার একটি জায়গা, চাইলে ঘুরে আসতে পারেন।

peyera bazzar ghalokathi
peyera-bazzar-ghalokathi

যাতায়াতঃ ঢাকা থেকে সড়ক ও নৌ পথ দুই ভাবেই যাওয়া যায়। সড়ক পথে ঢাকার গাবতলি থেকে বরিশাল এর বাস ছাড়ে ভাড়া ৪০০ টাকা। এছাড়া আপনি মাওয়া যেয়ে লঞ্চে বা স্পীড বোটে পদ্মা পাড়ি দিয়ে ওপাড়ে যেয়ে বিআরটিসি বাসে করে বরিশাল যেতে পারবেন। বরিশাল এর নতুল্লাবাদ থেকে বাসে অথবা সি এন জি করে যেতে হবে বানারিপাড়া। সি এন জি তে ভাড়া নিবে ৪০/৫০ টাকা। তারপর সেখান থেকে নসিমনে ১৫ টাকা ভাড়া দিয়ে যাবেন কুড়িয়ানা। একটু হেটে একটা ব্রীজ পাড় হয়ে আবার ইজি বাইকে করে ৫ টাকা ভাড়ায় চলে যেতে পারবেন আটঘর ও কুড়িয়ানা বাজারে।আর ভিমরুলি যেতে চাইলে বানারিপাড়া থেকে নৌকা বা ট্রলারে যাওয়াই ভালো।

peyera bagan
peyera-bagan

অথবা নৌ পথে ঢাকার সদরঘাট ঠেকে প্রতিদিন পিরোজপুর/বরিশাল এর লঞ্চ ও ষ্টীমার ছাড়ে বিকেল ৫ টা থেকে ৭ টা পর্যন্ত। ডেকের ভাড়া ২০০/২৫০ টাকা আর কেবিন সিঙ্গেল ৭০০/১০০ এবং ডাবল ১৫০০/২০০০ টাকা। আপনি পিরোজপুরের হুলার হাট নেমে চলে যাবেন বানারিপারা। অথবা সরাসরি বানারিপাড়া ও নামতে পারেন লঞ্চে। বানারিপারা থেকে উপড়ে উল্লেখিত নিয়মে যেতে পারেন অথবা এখান থেকেই ট্রলার রিজার্ভ করে নিতে পারেন। ভিমরুলি,আটঘর ,কুড়িয়ানা সহ আরো অনেক ছোট বাজার ও বাগান ঘুড়িয়ে আনার জন্য ৫০০-৭০০ টাকা ভাড়া নিবে ছোট ট্রলারে আর বড় ট্রলার ১২০০-১৫০০ টাকা। অবশ্যই দামাদামী করে ভাড়া ঠিক করবেন।

বাগান থেকে পেয়ারা নিয়ে বাজারের পথে চাষি…

peyera bazzar nouka
peyera-bazzar-nouka

কখন যাবেনঃ

জুলাই থেকে আগস্ট মাস এর প্রতিদিনই জমে এই বাজার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত চলে।

কোথায় থাকবেনঃ

আপনি দিনে যেয়ে দিনেও ফিরে আসতে পারেন। আর রাত্রি যাপন করতে চাইলে বরিশাল নতুল্লাবাদ চলে আসতে পারেন। অথবা ঝালকাঠি শহরের দু একটি হোটেল হলো কালিবাড়ি রোডে ‘ধানসিঁড়ি রেস্ট হাউস, বাতাসা পট্টিতে আরাফাত বোর্ডিং, সদর রোডে হালিমা বোর্ডিং ইত্যাদি। ভাড়া ১০০ থেকে ২৫০ টাকা।

কোথায় খাবেনঃ

ভিমরুল,আটঘর,কুড়িয়ানা এসব বাজারের পাশেই খাবারের হোটেল আছে মোটামুটি মানের।অথবা জেলা সদরে ফিরে এসেও খাওয়া দাওয়া সেরে নিতে পারেন।

আশেপাশের দর্শনীয় স্থানঃ

ভাসমান পেয়ারা বাজার ভ্রমন এর পাশাপাশি বরিশালের ঐতিহ্যবাহী মসজিদ গুঠিয়া মসজিদ ঘুরে আসতে পারেন ও সাথে দুর্গা সাগর দিঘি। বানারিপারা থেকে বরিশাল আসার পথে সড়কের পাশেই অবস্থিত এই দুটি স্থান।

টিপস ও পরামর্শঃ

১) গ্রুপ করে গেলে ভাল ।

২) নৌপথে যাওয়াই ভালো সড়ক পথ থেকে।

৩) রেইন কোট , ছাতা নিয়ে যাবেন।

৪) বাগানে ঢুকে পেয়ারা ছিড়বেন না।

৫) আমাদের প্রকৃতি রক্ষার দায়িত্ব আমাদের তাই কোন চিপ্স,চানাচুর বা পানির বোতল নদীতে ফেলবেন না।

লিখেছেনঃ Masum Hossen

About sinan

Check Also

kaptai-lake

কাপ্তাই লেক ভ্রমণ | চট্রগ্রাম

কাপ্তাই লেক ট্যুর ১০ মে পরীক্ষা শেষ করে ৩ বন্ধু রাতের ট্রেনে রওনা দিলাম চট্টগ্রামের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *